৯ম শ্রেণি রসায়ন অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ | ৭ম সপ্তাহ

৯ম শ্রেণি রসায়ন অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ | ৭ম সপ্তাহ

৯ম শ্রেণি রসায়ন অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ | ৭ম সপ্তাহ। প্রিয় ছাত্র ও ছাত্রী বন্ধুরা, কেমন আছেন সবাই? আসা করি সবাই ভালো আছেন। বরাবরের মতো, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের জন্য- প্রতি সপ্তাহে আপনার জন্য ষষ্ঠ,৭ম,৮ম,৯ম শ্রেণির এসাইনমেন্ট শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশের পরে, আমরা অবিলম্বে ৬ষ্ঠ,৭ম, ৮ম, ৯ম শ্রেণির উত্তর ২০২১ দিচ্ছি। আজকের পোস্টে, আমরা তোমাদের ষষ্ঠ,৭ম,৮ম,৯ম শ্রেণির ৭ম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্ন ও উত্তর শেয়ার করবো ।

৯ম শ্রেণির রসায়ন এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ | ৭ম সপ্তাহ

আপনি কি ৯ম শ্রেণির ৭ম সপ্তাহের জন্য রসায়ন এসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ সন্ধান করছেন? তাহলে, আপনি ঠিক জায়গায় ক্লিক করেছেন কারণ আমরা এখানে ৯ম শ্রেণির  ৭ম সপ্তাহের রসায়ন এসাইনমেন্ট সমস্ত বিষয় নিয়ে প্রশ্ন ও সমাধান প্রকাশ করেছি। আপনি আপনার শ্রেণির সমাধান প্রশ্নগুলিও দেখতে পারেন। আপনি যদি চান আপনার অ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্নের উত্তর সহজেই দেখতে পাবেন।

ক্লাস 9 রসায়ন এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১

ক্লাস 9 রসায়ন এসাইনমেন্ট সম্পর্কিত সকল তথ্য আমাদের এখানে বিস্তারিত আকারে আলোচনা করা হয়েছে। সুতরাং আপনি যদি রসায়ন এসাইনমেন্ট সম্পর্কিত কোন তথ্য জানতে চান, তাহলে আমাদের পোস্টটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত খুব ভালভাবে পড়ুন। তাহলে আশা করা যায় ক্লাস 9 এর রসায়ন এসাইনমেন্ট সম্পর্কে সকল তথ্য আপনি আমাদের এই পোস্ট থেকে জানতে পারবেন।

Class 9 Chemistry 7th week Assignment Answer

যেহেতু প্রত্যেক শিক্ষার্থী তাদের নির্ধারিত অ্যাসাইনমেন্ট বিদ্যালয় জমা দিয়ে পরবর্তী ক্লাসে উত্তীর্ণ হবে। সুতরাং আমরা বলতে পারি যে, ৯ম শ্রেনীর শিক্ষার্থীদের জন্য এই অ্যাসাইনমেন্ট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এই অ্যাসাইনমেন্ট আপনার বিদ্যালয় জমা দিলেই আপনি পরবর্তী ক্লাসে উত্তীর্ণ হতে পারবেন।

৯ম শ্রেণির রসায়ন এসাইনমেন্ট ৭ম সপ্তাহের জন্য

৯ম শ্রেণি রসায়ন বিজ্ঞান ৭ম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান

নির্ধারিত কাজ -২

দ্বিতীয় অধ্যায়ঃ পদার্থের অবস্থা

পদার্থ ও পদার্থের অবস্থা কণার গতিতত্ত্ব গতিতত্ত্ব ও পদার্থের ভৌত অবস্থা ব্যাপন ও নিঃসরণের বাস্তব ঘটনা ব্যাপন ও নিঃসরণ মােমবাতির জ্বলন ও মােমের তিন অবস্থা গলন ও স্ফূটন, বাষ্পীভবন, ঘনীভবন, উর্ধ্ব পাতন প্রক্রিয়া তাপমাত্রা বৃদ্ধিতে ব্যাপন হার বৃদ্ধি পরীক্ষা পাতন ও উর্ধ্ব পাতন ।

বালু মিশ্রিত খাবার লবগকে খাবার উপযােগী করা সম্ভব”। যে পদ্ধতিতে তুমি লবণকে খাবার উপযােগী করবে তার বিভিন্ন ধাপের বর্ণনা চিত্রসহ প্রতিবেদন আকারে লিখ।

উত্তরঃ

“বালু মিশ্রিত খাবার লবণকে খাবার উপযোগী করা সম্ভব।”- যে পদ্ধতিতে তুমি লবণকে খাবার উপযোগী করবে তার বিভিন্ন ধাপের বর্ণনা চিত্রসহ প্রতিবেদন।

খাদ্য লবন ও বালির মিশ্রণ হতে এর উপাদানসমূহ পৃথক করা যায় এ পরীক্ষণের দুইটি পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়েছে যথাক্রমে পরিস্রাবণ ও বাষ্পীভবন।

শিরোনাম : বালু মিশ্রিত খাবার লবণকে খাবার উপযোগী করা সম্ভব।

তত্ত্ব : বালু মিশ্রিত লবণে পানি যোগ করা হলে লবণ পানিতে দ্রবীভূত হয়ে যায়, কিন্তু বালু দ্রবীভূত হয় না। পরিস্রাবণ ও বাষ্পীকরণ এর সাহায্যে লবণ ও বালুকে পৃথক করা যায়।

পরীক্ষণটি করার জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি : বিকার ২ টি, ফানেল ১টি, ফিল্টার পেপার, কাচদণ্ড ১টি, ত্রিপদীস্ট্যান্ড, তারজালি, স্পিরিট ল্যাম্প, টেস্টটিউব ১টি, বেসিন।

রাসায়নিক দ্রব্য : লবণ ও সিলভার নাইট্রেট (AgNO3) দ্রবণ।

  • কর্মপদ্ধতি :
    একটি কাচের বিকারে বালু মিশ্রিত লবণ নিয়ে তাতে অল্প পানি যোগ করে কাচদন্ড দিয়ে নাড়ি। ফলে লবণ পানিতে দ্রবীভূত হয়ে যাবে। কিন্তু বালু পানিতে দ্রবীভূত হবে না।
  • একটি ফিল্টার পেপার পানিতে সামান্য ভিজিয়ে নিয়ে ফানেলের মধ্যে যথাযথভাবে স্থাপন করি।
  • ফানেলটিকে ২য় বিকারে স্থাপন করি।
  • ১ম বিকার থেকে বালু মিশ্রিত লবণের দ্রবণ অল্প অল্প করে ফানেলের মধ্যে ঢালি। ফলে ফিল্টার পেপার দিয়ে পরিস্রাবণের মাধ্যমে লবণ মিশ্রিত পানি ফোটায় ফোটায় ২য় বিকারে পড়তে থাকবে।
  • সম্পূর্ণ দ্রবণ পরিস্রবণ হয়ে গেলে ফানেলটিকে ২য় বিকার থেকে সরিয়ে নিই এবং ফিল্টার পেপার থেকে সামান্য পাতিত পানিদ্বারা বালু ধৌত করে আলাদা করে নিই।
  • ফিল্টার পেপারের বালুতে লবণ আছে কিনা তা জানার জন্য নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করি
  • ত্রিপদী স্ট্যান্ডের উপর তারজালি রাখি এবং লবণ মিশ্রিত সম্পূর্ণ পানি বিকারে নিয়ে বিকারটিকে তারজালির ওপর স্থাপন করি ও
  • স্পিরিট ল্যাম্প এর সাহায্যে বিকারটিতে তাপ দিতে থাকি। ফলে পানি বাষ্পীভূত হয়ে উড়ে যাবে কিন্তু লবণ বিকারে থেকে যাবে
  • এ অবস্থায় বিকারটিতে অল্প পরিমাণ পানি থাকতেই তাপ দেওয়া বন্ধ করি।
  • লক্ষ্য করি বিকারের তলায় কঠিন পরিস্কার লবণ জমা হয়েছে কিনা।

সাবধানতাঃ পরিস্রাবণ করার সময় মিশ্রণকে ভালোভাবে থিতিয়ে নিয়ে উপরের পরিষ্কার দ্রবণকে প্রথমে ফিল্টার পেপারে ঢালতে হবে, যেন বেশি বালু ফিল্টার পেপারে জমা না হয়। এতে পরিস্রাবণ দ্রুত ও সহজতর হয়।
মিশ্রণকে কাচ দন্ড দ্বারা ভালোভাবে নেড়ে সকল বালু ও দ্রবণ ফিল্টার পেপার এর উপর ঢালতে হবে।
পরিশেষে বাষ্পীকরণ এর সময় শেষ পর্যায়ে কিছু পানি থাকতে তা প্রয়োগ বন্ধ করতে হবে যাতে কাচের বাটিতে ফেটে না যায়।

সিদ্ধান্তঃ বালু মিশ্রিত খাবার লবণকে খাবার উপযোগী করা সম্ভব।

About ApplyForJob

Check Also

মহাদেশ ও মহাসাগর কয়টি ও কি কি

মহাদেশ ও মহাসাগর কয়টি ও কি কি

মহাদেশ ও মহাসাগর কয়টি ও কি কি মহাদেশ গুলোর নাম: আমরা পৃথিবীতে বসবাস করি, এই …

Leave a Reply