সকল সাধকের মূল উদ্দেশ্য – ৮ম শ্রেণির হিন্দুধর্ম এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর

৮ম শ্রেণির হিন্দুধর্ম এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর

“ সকল সাধকের মূল উদ্দেশ্য পরম পুরুষকে পাওয়া ” আজকের নির্ধারিত কাজ ।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক অধিদপ্তর কর্তৃক প্রকাশিত। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ ৬ষ্ঠ থেকে ৯ম শ্রেণি পর্যন্ত ১ম নির্ধারিত কাজ (Assignment) (১ম সপ্তাহের জন্য)। নতুন করে সকল শ্রেণির পুনর্বিন্যাস করা পাঠ্যসূচির আলোকে অ্যাসাইনমেন্ট ও মূল্যায়নের নির্দেশ দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। এই কার্যক্রম আগামী ২০ মার্চ থেকে প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কার্যকর করতে হবে । ইতিমধ্যে আ্যাসাইনমেন্ট এর কাজ শুরু হয়ে গেছে ।

Class 8 Hinduism Assignment Answer

তাই সকল শ্রেণির এসাইনমেন্ট এবং সমাধান নিয়ে আমরা আপনাদের সাথেই আছি applyforjobs24.com এখানে ‍Shikha News ক্যাটাগরিতে  আপনারা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ইং – ৬ষ্ঠ থেকে ৯ম শ্রেণি পর্যন্ত সকল বিষয়ের সমাধান পাবেন( প্রতি সপ্তাহের ) খুব সহজেই সবার আগে সংগ্রহ করতে পারবেন । অষ্টম শ্রেণির হিন্দুধর্ম এ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্ন ও উত্তর সংগ্রহ। নিচে দেখুনঃ

অষ্টম শ্রেণির হিন্দুধর্ম এ্যাসাইনমেন্ট

৮ম শ্রেণির হিন্দুধর্ম ১ম সপ্তাহের এ্যাসাইমেন্ট

এ্যাসাইনমেন্ট বা নির্ধারিত কাজ: সকল সাধকের মূল উদ্দেশ্য পরম পুরুষকে পাওয়া। উক্তিটির যৌক্তিকতা নিরুপণ করাে ?
 
নির্দেশনা: ১। তােমার পরিচিত চেনা- শােনা কয়েকজন। সাধকের ( অন্তত ৩ জন ) নাম উল্লেখ করাে।
২। কীভাবে তাঁদের সাধনার পথ পৃথক বিশ্লেষণ করাে।
৩। এ পথ পৃথক হওয়া সত্বেও তারা সকলেই পরম পুরুষের সাধনা করছেন-ব্যাখ্যা করাে।
৪। তাঁদের মত ও পথ কীভাবে তােমার জীবনকে প্রভাবিত করে তা উদাহরণসহ বর্ণনা করাে ।
 

মূল্যায়ন রুব্রিক্স

অতি উত্তম:

১। নির্দেশনায় উল্লিখিত বিষয়বস্তুর যথার্থতা ও ধারাবাহিকতার প্রকাশ

২। সঠিক তথ্যসহ উপস্থাপন

৩। উপস্থাপনার নিজস্বতা ও সৃজনশীলতা

৪। নান্দনিক ও বৈচিত্র্যপূর্ণ উপস্থাপন

উত্তম:

১। অধিকাংশ ক্ষেত্রে বিষয়বস্তুর যথার্থতা ও ধারাবাহিকতা রক্ষা

২। অধিকাংশ ক্ষেত্রে সঠিক তথ্যসহ উপস্থাপন।

৩। উপস্থাপনায় অধিকাংশ ক্ষেত্রে নিজস্বতা ও সৃজনশীলতা

৪। নান্দনিক ও বৈচিত্র্যপূর্ণ উপস্থাপন

ভালাে:

১। বিষয়বস্তুর যথার্থতা থাকলেও ধারাবাহিকতার অভাব

২। আংশিক তথ্যসহ উপস্থাপন

৩। উপস্থাপনায় আংশিক নিজস্বতা ও সৃজনশীলতা

৪। আংশিক নান্দনিক ও বৈচিত্র্যপূর্ণ উপস্থাপন

অগ্রগতি প্রয়ােজন:

১। বিষয়বস্তুর যথার্থতা থাকলেও ধারাবাহিকতার। অভাব।

২। কম তথ্যসহ উপস্থাপন।

৩। উপস্থাপনায় নিজস্বতা ও সৃজনশীলতার অভাব

৪। নান্দনিক ও বৈচিত্র্যপূর্ণ উপস্থাপনের অভাব

এ্যাসাইনমেন্ট ১০০% সঠিক সমাধান

“সকল সাধকের মূল উদ্দেশ্য পরম পুরুষকে পাওয়া”

সকল সাধকের মূল উদ্দেশ্য – ৮ম শ্রেণির হিন্দুধর্ম এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর

পরম পুরুষকে পাওয়ার পথ

পরম পুরুষ বলতে আমরা বুঝি ঈশ্বরকে। ঈশ্বরকে লাভ করা আমাদের সকলেই কামনা। আমরা তখনই আমাদের পরম পুরুষের সন্ধান পাব যখন আমরা ধর্মের পথে চলব। ধর্মপথ হচ্ছে ন্যায়ের পথ, সত্যের পথ অহিংসা এবং কল্যাণের পথ। জীবনের যেপথ অনুসরণ করলে মোক্ষ বা চিরমুক্তি ঘটে এবং সকলের কল্যাণ হয় সে পথই ধর্মপথ। আমরা ধর্ম পালন করি নিজের মোক্ষলাভ এবং জগতের কল্যাণের জন্য এ মোক্ষ লাভের জন্য কেবল ব্যক্তিগতভাবে সাধনা করলেই চলবে না। তাতে মোক্ষ লাভ হবে না ও পরম পুরুষকেও পাওয়া যাবে না। পাশাপাশি জীবনের কল্যাণ সাধনা করতে হবে। কারণ জীবের মধ্যে আত্মরূপে ঈশ্বর বা পরমাত্মা অবস্থান করেন।

তাই জীব জগতের কল্যাণ সাধন ও হিন্দুধরর্মাদশের একটি প্রধান ভিত্তি। আমাদের কে ধর্ম জ্ঞান সম্পর্কে জানতে হলে বেদ জানতে হবে। বিভিন্ন স্মৃতিশাস্ত্র থেকে বাস্তবসম্মত উপদেশ না পাওয়া গেলে মহাপুরুষদের আচরণ কে দৃষ্টান্ত হিসেবে গ্রহণ করতে হবে। এবং সে পথেই চলতে হবে। মূলত সফল সাধক হতে হলে একজন শ্রেষ্ঠ ধার্মিক হওয়া অত্যন্ত জরুরী। ধার্মিক হলে ধর্মকে প্রাণপনে গ্রহণ করা সম্ভব। ধর্মের পথ অনুসরণ করে সাধনার করে পরম পুরুষ কে পাওয়া যায়। সকল সাধকের মূল উদ্দেশ্য পরম পুরুষকে পাওয়া। এই পরম পুরুষকে পেতে হলে জীবনে কঠিন তপস্যা করতে হবে। ধর্ম, শাস্ত্রনীতি ইত্যাদি মেনে চলতে হবে। যেন আমরা পরম পুরুষ বা ঈশ্বরকে লাভ করতে পারি। ঈশ্বরকে লাভ করতে না পারলে মানবজীবন বা সাধক জীবনই বৃথা হবে।

হিন্দুধর্ম এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ৮ম শ্রেণির

নির্দেশনা মূল্যায়নঃ

(১) আমার জানা তিনজন সাধক হচ্ছেন অমল ঠাকুর,স্বামী আচার্য চয়ন,সন্ধ্যা দেবী। অমল ঠাকুর একজন শিব ভক্ত। তিনি ঈশ্বরের আরাধনা হিসেবে ধ্যানকেই বেছে নিয়েছেন। একনিষ্ঠ মনে নিরিবিলি বসে ঈশ্বরের আরাধনা করাকেই ধ্যান বলেন ।
অমল ঠাকুরের কাছে ঈশ্বর নিরাকার এবং ধ্যানই হচ্ছে ঈশ্বর লাভের পথ তাই তিনি একজন জ্ঞানী ভক্ত।

স্বামী আচার্য রােজ সকালে উনার বাড়ির মন্দিরে ঈশ্বরের পুজা অর্চনা করেন এবং রােজ সম্পূর্ণ গীতা পাঠ করেন, নৈবেদ্য চড়ান তার কাছে ঈশ্বর সাকার। তাই ঈশ্বরের প্রতিমা বা প্রতীক সামনে রেখেই তিনি করেন তার সাধনা। ঈশ্বর তার কাছে এটাই ।

অন্যদিকে সন্ধ্যা দেবী ধ্যানও করেন আবার পুজা অর্চনাও করেন। তার কাছে ঈশ্বরকে মন দিয়ে ডাকাই হচ্ছে তাকে পাওয়ার একমাত্র পথ। তিনি ঈশ্বরকে সন্তুষ্ট করার জন্য সবকিছুই করতে চান। তাই তার কাছে ঈশ্বর সাকার-নিরাকার দুটোই। তাদের সাধনার পথ পৃথক ।একজনের কাছে ঈশ্বর সাকার তাে আরেকজনের কাছে ঈশ্বর নিরাকার আবার অন্যজনের কাছে ঈশ্বর সাকার ও নিরাকার উভয়ই। তবে তারা সবাই কিন্তু একই ঈশ্বরের সাধনায় ব্রত। এক ঈশ্বরকে পাওয়ার আকাঙখা থেকেই তাদের সাধনার পথে পা বাড়ানাে।

অষ্টম শ্রেণির হিন্দুধর্ম এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর

ঈশ্বর এক ও অদ্বিতীয় তাই একাধিক ঈশ্বরের আরাধনা কখনােই সম্ভব নয়। যে যেভাবেই সাধনা করুক না কেন তাদের সবারই মূল উদ্দেশ্য পরম পুরুষকে পাওয়া। সেক্ষেত্রে আমার জানা তিনজন সাধকের সাধনার পথ পৃথক হলেও তাদের উদ্দেশ্য ওই এক পরম পুরুষেই গিয়ে মিলেছে। তাই ভক্ত যতজনই হােক আর যে যেভাবেই ভজনা করুক প্রত্যেকের জন্য ঈশ্বর হলেন একজন। এক ঈশ্বরের শিষ্য সবাই, সবারই উদ্দেশ্য ঈশ্বর তথা পরম পুরুষের সান্নিধ্য লাভ করা,তাকে পাওয়া। তাদের মত ও পথ আমায় ভীষণভাবে প্রভাবিত করেছে। তাদের সাধনা দেখে আমি এটা বুঝতে পেরেছি যে এই জীবনে আমাদের প্রধান কাজই হচ্ছে ঈশ্বরের সান্নিধ্য লাভের প্রচেষ্টা। পরম পুরুষকে না পেলে কারােরই মােক্ষলাভ ঘটবে না।

আমি এটা জানতে পেরেছি যে,ঈশ্বরকে লাভের জন্য তাকে মন দিয়ে ডাকাই হচ্ছে সহজ পথ। ঈশ্বরকে যে যেভাবেই ভজনা করুক যদি সে মন দিয়ে তাকে ডাকতে পারে তাহলে ঈশ্বরও তার ডাকে সাড়া দিয়ে থাকেন। ভক্তের ডাকে ভগবান সাড়া না দিয়ে থাকতে পারেন না। এখন আমিও রােজ গীতাপাঠ করি ।প্রতিদিন স্নান করে ধ্যান করি।পুজা অর্চনাও করি।

আমার উদ্দেশ্য তাদের মতাে এতটা গভীর না হলেও আমিও ঈশ্বরকে সন্তুষ্ট করতে চাই। কারন ভগবান ছাড়া ভক্তের কোনাে মূল্য নেই। তাই আমাদের প্রত্যেকেরই উচিত ঈশ্বরের নামে নজের জীবনকে সমাপিত করা। আমাদের জীবন দান করেছেন ঈশ্বর,তাই জীবনে চলার পথে তাকেই সবার উপরে রেখে চলতে হবে।ঈশ্বরকে সন্তুষ্ট করতে পারলেই জীবন হবে মধুময়।

 

About ApplyForJob

Check Also

মহাদেশ ও মহাসাগর কয়টি ও কি কি

মহাদেশ ও মহাসাগর কয়টি ও কি কি

মহাদেশ ও মহাসাগর কয়টি ও কি কি মহাদেশ গুলোর নাম: আমরা পৃথিবীতে বসবাস করি, এই …

5 comments

  1. অনেক ধন্যবাদ ভাই….অসেক জায়গায় খুজছি কিন্তু পাই নাই । এখানে এসে সঠিকটা পেলাম..

  2. ৮ম শ্রেণির হিন্দুধর্ম এসাইনমেন্ট দেওয়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ

  3. অষ্টম শ্রেণির হিন্দুধর্ম এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর এগুলো লিখলেই কি হবে .?

    • অষ্টম শ্রেণির হিন্দুধর্ম এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর যা আছে তাই লিখলে হবে

Leave a Reply